• সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

বাবরের গোপন অভিসারে পাকিস্তানে তোলপাড়

পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম এখন অবস্থান করছেন নিউজিল্যান্ডে। সেখানে সতীর্থরা করোনাভাইরাসের নিয়ম না মানায় বেশ অস্বস্তিতে রয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক নিজেও। কিন্তু এরমধ্যেই তার বিরুদ্ধে এক নারী অভিযোগ এনেছেন যৌন নির্যাতন ও অর্থ লোপাটের।

প্রায় দশ বছর প্রেমের পর বাবর প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন হামিজা মুখতার নামের এক তরুণী। লাহোরে এক সংবাদ সম্মেলনে শনিবার তিনি জানিয়েছেন, বাবর আজম অনেক আগে থেকেই তার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। প্রায় ১০ বছর ধরে তাদের এই সম্পর্ক চলছিল। এমনকি এই সময়ের মধ্যে তাদের শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারীকে বিয়ের মিথ্যা প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন বাবর আজম।

লাহোরের ওই নারী হামিজা আরও জানান, বাবর আজম ছিলেন তার স্কুল জীবনের বন্ধু। তারা একসঙ্গেই পড়াশোনা করতেন। সেখান থেকেই তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০১০ সালে হামিজাকে বিয়ে করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বাবর। শুধু তাই নয়, কোর্টে বিয়ে করবেন বলে তারা দু’জন নাকি বাড়ি থেকে পালিয়েও গিয়েছিলেন।

হামিজার দাবি, তার বিউটি পার্লারের আয় দিয়ে বাবরের পেছনে অনেক টাকা খরচ করেছেন তিনি। দশ বছরে বাবর তার কাছ থেকে প্রায় এক কোটি পাকিস্তানি রুপি নিয়েছেন। কিন্তু এখনো এক রুপিও ফেরত দেননি বলে অভিযোগ করেন ওই নারী। তিনি আরও অভিযোগ করেন, পাকিস্তান জাতীয় দলের হয়ে খেলার সময় তারকাখ্যাতি পান বাবর আজম। এরপর থেকেই হামিজাকে আর পাত্তা দেননি তিনি। এমনকি বিয়েও করেননি।

আর এসব ব্যাপার নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন হামিজা। এজন্য বাবর নাকি তাকে হত্যার হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিলেন এবং শারীরিকভাবে নির্যাতনও করেছিলেন। এদিকে সাজ সাদিক নামে পাকিস্তানি এক সাংবাদিক টুইটারে ভুক্তভোগী ওই নারীর প্রেস কনফারেন্সের ভিডিও পোস্ট করেছেন। ওই ভিডিও দেখার পরই পাকিস্তান ক্রিকেটে শুরু হয়েছে তোলপাড়।

READ  মার্চে আসছে প্রোটিয়া ইমার্জিং নারী ক্রিকেট দল

admin

Read Previous

ওবায়দুল কাদের মন্ত্রীর অনুকূলে বরাদ্দ পাওয়া গাড়ি ফেরত দিলেন

Read Next

দেহরক্ষীর সঙ্গে সম্পর্ক! সত্যি লুকাতে কোটি-কোটি টাকা ঘুষ রানির

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *