• সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১

মাস্ক কারও থুতনিতে, কারও পকেটে

রাজধানীর রবীন্দ্র সরোবরে বসে গল্প করছিলেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের সহকর্মীরা। কারও মুখেই মাস্ক নেই। এমন সময় সেখানে হাজির হন প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। দেখা গেল, চার সহকর্মীর সবার সঙ্গেই মাস্ক আছে। কিন্তু সেটা মুখে না পরে রেখেছেন পকেটে। মুখে মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁদের ৪ জনকে ৪০০ টাকা জরিমানা করেন।

আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা মহানগরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রফিকুল হক এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।
সত্তরোর্ধ্ব খালেক শিকদার ডায়াবেটিস রোগী। ধানমন্ডির ৮ নম্বর রোডে মেয়ের বাসায় তিনি থাকছেন। অবসর পেলেই তিনি রবীন্দ্র সরোবরে চলে আসেন।

আজকেও তিনি রবীন্দ্র সরোবরে এসেছেন, কিন্তু মাস্ক ছাড়া। ভ্রাম্যমাণ আদালত দেখে তিনি কিছুটা লজ্জিত হন। এ প্রতিবেদককে বলেন, তিনি নিজেও করোনার ঝুঁকিতে আছেন। তিনি অনেক দিন ধরে ডায়াবেটিস ও টাইফয়েড রোগে ভুগছেন।

মাস্ক নেওয়ার কথা খেয়াল থাকে না। ভুল হয়ে যায়।

READ  যে গ্রামে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করেন নারীরা

admin

Read Previous

মামুনুল হক, বাবুনগরীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা

Read Next

মামুনুল হকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *