• জুন ২৩, ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রকে ধ্বংস করতে পারে একমাত্র রাশিয়াঃ ট্রাম্প

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ফোন করেছিলেন কিন্তু তাকে দেয়া হয়নি এমনটা শুনে রেগে লাল হয়ে যান ২০১৭ সালে সদ্য শপথ নেয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নতুন একটি ডকুমেন্টরিতে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

ট্রাম্প শপথ নেয়ার কিছুদিন পর ওয়াশিংটন সফরে যান তৎকালীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। মে’র সঙ্গে অস্বস্তিকর একটি বৈঠকের মধ্যেই ট্রাম্পকে বলা হয় পুতিন তাকে ফোন করেছিলেন। এমনটা শুনে রীতিমতো রেগে যান ট্রাম্প।

বিবিসির তৈরি করা এই ডকুমেন্টরি আজ বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) প্রচারিত হবে। সেখানে বলা হয়, হোয়াইট হাউজের উপদেষ্টারা যখন ট্রাম্পকে জানান যে পুতিন ফোন করেছিলেন কিন্তু তাকে দেয়া হয়নি, এটা শুনে তিনি রেগে যান।

ট্রাম্পের তখনকার অবস্থা বর্ণনা করতে গিয়ে তৎকালীন ডাউনিং স্ট্রিট চিফ অব স্টাফ ফিয়োনা ম্যাকলিড হিল বলেন, এক পর্যায়ে ট্রাম্পের চেহারা হলুদ, না রক্তিম হয়ে যায়। ‘ট্রাম্প টেকস অন দ্য ওয়ার্ল্ড’ শিরোনামে তিন খণ্ডের এই ডকুমেন্টরিটি তৈরি করেছে পুরস্কারজয়ী ডকুমেন্টরি নির্মাতা নর্মা পারসি।

ম্যাকলিড হিল বলেন, তিনি প্রচণ্ড ক্ষেপে যান। ট্রাম্প বলেন, আপনারা বলছেন ভ্লাদিমির পুতিন ফোন দিয়েছিলেন তাহলে এখন লাঞ্চের সময় কেন এই কথা বলছেন? আমি তখন কম্পন অনুভব করতে পারছিলাম।

কিন্তু পুতিনের ফোনকল মিস করায় স্পষ্টতই রেগে ছিলেন ট্রাম্প। তখন তিনি মে’কে বলেন, রাশিয়ার নেতার ফোন তিনি ধরতে পারেননি এটা তার বিশ্বাস হচ্ছে না।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে ট্রাম্প বলেন, ভ্লাদিমির পুতিন হচ্ছে বিশ্বের একমাত্র ব্যক্তি যিনি যুক্তরাষ্ট্রকে ধ্বংস করতে পারে এবং আমি তার কল ধরিনি।

READ  আটক সেনা ফেরত না দিলে চরম প্রত্যাঘাতের হুঁশিয়ারি চীনের

admin

Read Previous

শরীরের জন্য ক্ষতিকর যেসব আলু

Read Next

১৪৩৯ জন অফিসার নেবে পাঁচ ব্যাংক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *