• জুন ১৬, ২০২১

লকডাউনের প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও নিউমার্কেটে সড়ক অবরোধ

লকডাউনের প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রায়েরবাগ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবরোধ করেছেন অফিস ও কর্মস্থলগামী মানুষেরা। অপরদিকে মার্কেট খোলা রাখার জন্য নিউমার্কেটে সড়ক অবরোধ করেছেন ব্যবসায়ীরা।

সোমবার (৫ এপ্রিল) সকাল থেকেই এসব সড়ক অবরোধ করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিপুল পরিমানে পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের অবরোধকারীরা জানান, বাস ছাড়া সড়কে প্রায় সব ধরনের যানবাহনই চলাচল করছে। বিশেষ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব বাহন, ব্যক্তিগত গাড়ি এবং ট্রাক চলছে স্বাভাবিকভাবেই। কারখানা খোলা রাখলেও শ্রমিক-কর্মচারীদের যাতায়াতের জন্য গাড়ির কোনো ব্যবস্থা নেই। আমাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় পৌঁছাতে বলা হয়েছে। সবার জন্য গাড়ির ব্যবস্থা করতে হবে, না হয় সব কিছু বন্ধ করতে হবে।

এদিকে মার্কেট খোলা রাখার দাবি জানিয়ে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীরা বলেন, এর আগেরবার লকডাউনে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। সেই ক্ষতি এখনো পুষিয়ে নিয়ে পারিনি। অনেকের ঋণের বোঝা রয়েছে। এবারও লকডাউন দেওয়া হয়েছে। এটা আবারও হয়তো বাড়তে পারে। সামনে রমজান মাস আমাদের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার একটা সময়। কিন্তুআমরা শঙ্কিত রয়েছি। সব কিছুই যেহেতু চলছে তাই আমাদের মার্কেট খোলা রাখারও দাবি জানাচ্ছি।

সোমবার সকালে রাজধানীর যাত্রাবাড়ি, কমলাপুর, বাসাবো, মালিবাগ, বাড্ডা এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, কর্মস্থলগামী মানুষ রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকলেও গণপরিবহন নেই। এ সময় অনেককে রিকশা, সিএনজি, ছোট পিকাপে করেও গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ৫-১১ এপ্রিল চলাচলে কঠোর নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা উল্লেখ করে রবিবার (৪ এপ্রিল) সরকারের পক্ষ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এসময় গণপরিবহন, ট্রেন, লঞ্চ ও অভ্যন্তরিন বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

READ  সপ্তাহের শেষে বৃষ্টিপাত কমে আসবে

Pial

Read Previous

৫৩ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য আবারও ফাঁস

Read Next

তথ্য প্রচারে সতর্কতা জরুরি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *