• সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

বিশ্বে প্রথমবারের মতো প্রাণীর শরীরে করোনার টিকা

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানায় চারটি ওরাংওটাং এবং পাঁচটি বোনোবোসকে টিকা দেওয়া হয়েছে। এই প্রথম মানুষ ব্যতীত অন্য কোনো প্রাণীকে টিকা দেওয়া হয়েছে। গরিলা প্রজাতির মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) এই টিকা দেওয়া হয়।

জানা যায়, যে চারটি ওরাংওটাংকে টিকা দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে কারেন নামে সুমাত্রা থেকে আসা ২৮ বছরের একটি নারী ওরাংওটাং রয়েছে। ১৯৯৪ সালে কারেনের হৃদ্‌যন্ত্রে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। কারেনই ছিল প্রথম ওরাংওটাং, যার এ ধরনের অস্ত্রোপচার হয়। সে সময় কারেন সংবাদমাধ্যমের শিরোনামও হয়। খবর রয়টার্সের।

চিড়িয়াখানার মুখপাত্র ডার্লা ডেভিস ই–মেইলে জানান, নয়টি প্রাণীকে পরীক্ষামূলকভাবে গত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে করোনার টিকার দুটি ডোজ দেওয়া হয়েছে। এই টিকা কুকুর ও বিড়ালদের জন্য প্রস্তুত করা হয়। টিকা নেওয়ার পর ওরাংওটাং ও বোনোবোসগুলো ভালো আছে। তাদের শরীরে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানার সাফারি পার্কে এ বছরের জানুয়ারি মাসে আটটি গরিলা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়। তাদের মধ্যে ৪৮ বছর বয়সী উইন্সটন নামের একটি পুরুষ গরিলা নিউমোনিয়া ও হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়েছিল। গরিলাটি এখন সুস্থ হয়ে উঠছে। উইন্সটনকে বিভিন্ন ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করা হয়। তার শরীরে প্রাণীর শরীরের উপযোগী করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডিও প্রয়োগ করা হয়।

পশুচিকিৎসকদের ধারণা, গরিলাগুলোর শরীরে এর মধ্যেই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। এ কারণে তাদের করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হয়নি।

পশুবিষয়ক ওষুধ কোম্পানি জোয়েটিস এই টিকার উন্নয়নকাজ করেছে। সান ডিয়াগো ওয়াইল্ডলাইফ অ্যালিয়েন্সের বন্য প্রাণীবিষয়ক কর্মকর্তা নাদিন লামবারস্কি জানান, এর আগেও এ ধরনের প্রাণীকে ফ্লু ও হামের টিকা দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বে এই প্রথম মানুষ ভিন্ন অন্য কোনো প্রাণীকে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হলো।

READ  বাংলাদেশ সফরে সম্মতি জানিয়েছেন এরদোগান

Pial

Read Previous

মাত্র ৬ ভোটে জিতে গদি রক্ষা ইমরান খানের

Read Next

আবারও কমেছে স্বর্ণের দাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *